সম্পত্তি হাতানো হলেই স্বামী চেঞ্জ করতেন, আজ তার 11 টি বিয়ে, কুকীর্তি ফাঁস এই মডেল অভিনেত্রীর

শুধুমাত্র বলিউড নয়, মাদক কাণ্ডে বেশ কয়েকদিন ধরে উত্তাল হয়েছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের জনপ্রিয় অভিনেত্রী পরিমনির গ্রেফতার হওয়ার পর গ্রেপ্তার হলেন দুই অভিনেত্রী। বাংলাদেশী মডেল মারিয়া আক্তার মৌ এবং সারিয়া মহাবুব পিয়াসা গ্রেপ্তার হওয়ার পর আরো একবার নতুন করে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। মারিয়া আক্তার মৌ, যার সঙ্গে বেশ কয়েকজন বিশিষ্টদের ভালো যোগাযোগ ছিল।

অভিনেত্রী গ্রেপ্তার হওয়ার পর থেকে তার সমস্ত যোগাযোগ নম্বর খতিয়ে দেখছে গোয়েন্দা পুলিশ। পাশাপাশি তার বিপুল পরিমাণ সম্পদের উৎস কোথা থেকে এসেছে তার জন্য খোঁজ করেছেন পুলিশ। ইতিমধ্যেই যে সিসিটিভি ফুটেজ পাওয়া গেছে তার পরিপ্রেক্ষিতে বেশ কয়েকজনকে নিজেদের হেফাজতে নিয়েছেন পুলিশ। পাশাপাশি জানা যাচ্ছে এই মডেল এবং অভিনেত্রী এগারটি বিয়ে করেছিলেন। তার সর্বশেষ বিয়ে একটি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের পরিচালককে।

জানতে পারা গেছে, ধনী ব্যক্তিদের ফাঁদে ফেলে বিয়ে করা ছিল এই অভিনেত্রীর অন্যতম পেশা। বিয়ের পর স্বামীর থেকে সম্পত্তি হাতিয়ে নিয়ে নতুন করে শিকার ধরার জন্য বের হতেন তিনি। ইতিমধ্যেই তিনি সেরে ফেলেছেন এগারটি বিবাহ। তবে প্রাক্তন স্বামীর সকলেই তাঁর এই অপকর্ম সম্পর্কে জানেন। ফলে নিজেরা বিরক্ত হয়ে তালাক দিয়ে দিয়েছেন এই অভিনেত্রীকে।

বাংলাদেশের এই বহু বিবাহিতা অভিনেত্রীর বাড়ি মোহাম্মদপুর। সেখানে একটি বিলাসবহুল বাড়ি রয়েছে তার। বাড়ি ছাড়া রয়েছে তিনটি বড় বড় দামী দামী গাড়ি। এত কিছু রয়েছে কিন্তু টাকার উৎস সেইভাবে নেই। তা হলে বোঝা যাচ্ছে, মডেলিংয়ের নামে এই মডেল-অভিনেত্রী উচ্চবিত্ত পরিবারের সন্তানদের ব্ল্যাকমেইল করেন এবং কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেন।

তবে এই কাজে তিনি শুধুমাত্র একা নয়, তার সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন আরো বেশ কয়েক জন তরুণী। ওনারা সকলেই বিত্তশালীদের ফাঁদে ফেলে বাড়ি ডেকে মদ খাইয়ে অচেতন করতেন এবং নানান ধরনের অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি এবং ভিডিও ক্যামেরা বন্দী করতেন, পরে সেই সমস্ত ছবি এবং ভিডিও দেখিয়ে বিত্তশালীদের ব্ল্যাকমেইল করতেন এবং তাদের থেকে কোটি কোটি টাকা আদায় করতেন।।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button