প্রতিবন্ধী মা এবং বৃদ্ধ পিতাকে ঘর থেকে তাড়িয়ে দিয়েছিল ছেলে ,১৫ বছর পর পিতা ছেলেকে এই উচিত শিক্ষা দিল, জানলে হবেন

  1. মাতা পিতা অনেক সন্তান কে একইসাথে লালন পালন করে থাকে, কিন্তু কিছু কিছু সন্তান তাদের মাতা-পিতা কে আশ্রয় দিতে চায়না। শহরের চাখলীচক এলাকায় পাঁচটি ছেলে নিজের বৃদ্ধ মা এবং ৮৬বছরের বৃদ্ধ বাবাকে ঝোপঝাড়ে থাকার জন্য জোরজবস্তি করল। তাদের মাতা পিতা বিগত ১৫ বছর ধরে এই ঝোপঝাড়ে বসবাস করছিলেন। পিতার নাম হীরালাল সাহু বলেন যে তাদের জমিতে তার পাঁচ ছেলে সুমরান লাল, হুকুমসাহু,প্রমোদ সাহু,উমা শংকর এবং কীর্তন সাহু সকলে মিলে একটি ভবন নির্মাণ করেন এবং পাঁচ ছেলে মিলে বৃদ্ধ মা এবং পিতাকে গৃহ থেকে বহিস্কার করে।

এই ঘটনায় হীরালাল সাহু এমন একটি পদক্ষেপ নেন যেটি কিনা প্রত্যেক বাবা মা এবং সন্তানের জন্য একটি উচিত শিক্ষা।প্রতিবন্ধী মা এবং বৃদ্ধ পিতাকে পাঁচটি সন্তানরা মিলে গৃহ থেকে বহিস্কার করল:-৮৬ বছরের বৃদ্ধ হীরালাল নিজের প্রতিবন্ধী স্ত্রীর সাথে ১৫ বছর ধরে এই ঝোপঝাড়ে বসবাস করছিলেন, তিনি বহুবার তার সন্তানদের কাছে আবেদন করে তাকে তাদের গৃহে আশ্রয় দেওয়ার জন্য কিন্তু তারা তার কথা মানেন নি।মেনে নেওয়া তো দূরের কথা পাঁচটি সন্তানের মধ্যে একটি সন্তান তার পিতা-মাতার সাথে যোগাযোগ ও করেনি।যেমন তেমন করে হীরালাল সাহস জুটিয়ে তার পাঁচটি ছেলের বিরুদ্ধে চিখলি থানায় মামলা করেন। চিখলি পুলিশ বরিষ্ঠ নাগরিক সুরক্ষা ২০০৭ নিয়মানুসারে ধারা ২৪ অনুসারে পাঁচটি ছেলের বিরুদ্ধে মামলা অভিযুক্ত করেন এবং তদন্ত শুরু করে দেন,হীরালাল প্রথমে শাসকীয় সাংবাদিকের কর্মচারী ছিলেন এবং তিনি চাকরি চলাকালীন এই জমি এই ভেবে ক্রয় করেন যে ভবিষ্যতে তার ছেলেদের এবং নাতি-নাতনির সাথে জীবন কাটাবেন বলে।

কিন্তু এই জমিতেই তার ছেলেরা তার বিনা অনুমতিতে ভবন নির্মাণ করেন এবং পরিবারের বৃদ্ধ পিতা-মাতাকে গৃহ থেকে বহিস্কার করে দেন,তদন্ত হওয়ার পর হীরালাল এখন তার গৃহে জীবন কাটাতে পারবেন,বিগত ১৫বছর ধরে এই ঝোপঝাড়ে তিনি এবং তার স্ত্রী তাদের জীবন অতিবাহিত করেছিলেন।পুলিশের কাছে অভিযোগ করার পর তার চারটি সন্তানকে গ্রেপ্তার করা হয়। হীরালাল এর একটি ছেলে ভোপালে বসবাস করেন, যার কারণেই পুলিশ তাকে ধরতে পারেনি কিন্তু বাকি সন্তানদের গ্রেফতার করা হয়, এবং এর মধ্যে সবচেয়ে উত্তম কথা হল ছেলেদের জামিন হয়ে গেছে এবং জামিনের পর তারা তাদের মাতা-পিতাকে গৃহে নিয়ে যাওয়ার জন্য রাজি হয়েছে।

হীরালাল বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থদের অনুদান দিয়েছিলেন:-১৫ বছর ধরে ঝোপঝাড়ে বসবাস করা হীরালাল অনেক ভালো কাজ ও করেছেন কিন্তু তার জীবনে সবচেয়ে বড় উপকার করেন যখন তিনি কেরলে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের ৭০ হাজার টাকা অনুদান করেন। জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে তার উপার্জন করা অর্থ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের অনুদান করেন। এই ঘটনার দ্বারা আজকালকার ছেলেদের কিছু শেখা উচিত।এ ছাড়া এইরূপ বৃদ্ধ ব্যক্তিদের সামনে বেরিয়ে আসার আহ্বান করার আবেদন জানানো হয় এবং তাদের পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল যে আপনিও যদি আপনার বৃদ্ধ বাবা-মায়ের উপর অত্যাচার চালাচ্ছেন তবে আপনারাও আইন অনুসারে এর উচিত শাস্তি পাবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button