কাজের মেয়ের প্যান্টের ভেতর থেকে পাওয়া গেল লক্ষাধিক টাকা, হাতেনাতে ধরে ফেলল বাড়ির মালিক, ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় নিমেষে ভাইরাল।

শুনতে হাস্যকর হলেও এটাই সত্যি। চুরি করে নিজের প্যান্টির ভিতরে টাকা ঢুকিয়ে রেখেছিলেন সাধনা পান্ডে । দিল্লিবাসী এই সাধনা পেশায় লোকের বাড়ি রান্নার কাজ করেন। আর সেই রান্নার কাজ করার ছুঁতোতেই প্রায় এক লক্ষ্য টাকা বাজেয়াপ্ত করার অপরাধে ধরা পরেছেন তিনি।

সূত্রমতে, জানা গেছে যে গত পরশুর ঘটনা মনীষা তিওয়ারী নামক এক ভদ্রমহিলার হাতেই ধরা পরেন সাধনা। মনীষা দেবীর বাড়িতে বেশ কিছুদিন ধরেই রান্নার কাজ করছিলেন সাধনা।গত পরশু নিজের আলমারি থেকে এক লক্ষ্য টাকা গায়েব দেখে মনীষা দেবীর সন্দেহ হয় সাধনার উপর। তাকে জেরা করায় তিনিও আমতা আমতা করতে থাকেন। ফলত মনীষা দেবীর কাছে এটা খুব পরিষ্কার হয়ে যায় যে টাকা সাধনাই সড়িয়েছে। আর এই সন্ধেহের জেরেই কার্যত জোর করেই সাধনার পুরো দেহ খুঁজে প্যান্টির ভেতর থেকে উদ্ধার করা হয় একলক্ষ্য টাকা এছাড়াও পাওয়া যায় একটি আলমাড়ির চাবিও, যা অসঙ্গত কারণেই সরিয়ে রেখেছিলেন সাধনা।

এরপর চাঞ্চল্য ছড়ায়, অবশ্য মনীষা দেবীর কথা অনুযায়ী তারা সাধনার গায়ে কোনো হাত তোলেনে, সঙ্গে সঙ্গে তাকে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে তার পরিবার।এই প্রসঙ্গে মনীষা দেবী বলেছেন ” আমরা বাড়ির কাজের লোখ হিসেবে ওকে দেখতাম না, যথেষ্ট ভালোবাসতাম। ও এরকমটা কেনো করলো জানিনা, তবু এরপরেও আমরা ওর গায়ে একবারও হাত তুলিনি। পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছি এবার আইন যা ভালো বুঝবে।”

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button