অভিনেত্রী নোরা ফতেহি গোপন চ্যাট ফাঁস, সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল

ঠগ ‌সুকেশ চন্দ্র শেখর এর সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে গত কয়েকদিন ধরে আলোচনায় রয়েছেন বলিউড অভিনেত্রী জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজ। তাদের নাম প্রতিদিনই শিরোনামে আসে এবং এই ব্যাপারে সুকেশের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে বলিউড অভিনেত্রী ও নৃত্যশিল্পী নোরা ফাতেহির নাম।

সুকেশের কাছ থেকে নানা দামি উপহার ও বিলাসবহুল জিনিস নেওয়ার অভিযোগ রয়েছে। এদিকে নোরা এবং সুকেশের মধ্যে একটি ব্যক্তিগত আড্ডার বিষয়টি সামনে এসেছে। এই আড্ডায় ব্ল্যাক মানি, দামী উপহার দেওয়ার কথা বলেছেন, অন্যদিকে এর উপহার গ্রহন করার কথা বলেছেন। নোরা ও সুকেশ এর মধ্যে আড্ডা একটি চ্যানেল দ্বারা অ্যাক্সেস করা হয়েছিল এবং তার রিপোর্ট অনুযায়ী চন্দ্রশেখর নোরা ফাতেহিকে অনেক দামী দামী ও বিলাসবহুল উপহার দিয়েছেন।

তাদের কাছ থেকে জানা গিয়েছে, সদস্যগণেরা ওকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন যে, তিনি রেঞ্জ রোভার গাড়ি পছন্দ করেন কি না? উত্তরে বলেছিলেন, “হ্যাঁ, এটি একটি ভালো ব্যবহারের গাড়ি এবং এটি সুন্দর, এটি একটি স্টেটমেন্ট কার। তখন অভিযুক্ত সুকেশ বলেন, “আমি আপনাকে আরো অপশন দেবো।” এর সাথে অন্য আরেকটি চ্যাটে চন্দ্রশেখর অভিনেত্রী নোরাকে লিখেছিলেন, “আপনি যদি আমার সাথে এক মিনিটের জন্য কথা বলতে পারেন আমি খুব খুশি হব এবং এর জন্য আমি আপনার কাছে কৃতজ্ঞ থাকব। আমি আশা করছি আপনি ও আপনার এজেন্সি উপহারটি কেন দেওয়া হয়েছে তা নিয়ে ভাবছেন না, আমি আপনাকে জানিয়ে দিই যে, এটি কোন ধরনের উদ্দেশ্য নিয়ে দেওয়া হচ্ছে না। আপনিও তো জানেন, যখন কেউ কাউকে পছন্দ করে তখন সে তাকে উপহার দেয় এজন্য আমি এটা করছি।”

আমরা আপনাকে বলি যে, এই দুই মামলায় নোরা ফাতেহি এবং জ্যাকলিন ফার্নান্দেজ উভয়কে বেশ কয়েকবার জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন এবং 200 কোটি টাকার মানি লন্ডারিং মামলার সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিদের জিজ্ঞাসাবাদ করছেন। সম্প্রতি চন্দ্রশেখর তিহার জেলে বন্দী এবং তার কাছ থেকে জিজ্ঞাসাবাদ করার সময় বলেন, তিনি জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজ এর বোনের কাছে অর্থ স্থানান্তর করছিলেন।

আপনাকে জানিয়ে রাখি যে, মামলায় গ্রেফতার হওয়ার সময় সুকেশ ইডিকে বলেছিলেন, “তিনি আমেরিকায় বসবাসকারী জ্যাকলিনের বোনের কাছে 1 লাখ 80 হাজার ডলার স্থানান্তরিত করেছিলেন এবং 1 লাখ 50 হাজার ডলার দাবি করেছিলেন জ্যাকলিন। এ ক্ষেত্রে অভিনেত্রী নোরা ফাতেহিকে সরকারি সাক্ষী করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button