শাস্ত্রীয় মতে, এরকম গুণাবলী সমৃদ্ধ মেয়েকে বিবাহ করলে আপনার ভাগ্যের পরিবর্তন হবেই হবে। দেখেনিন খুবই গুরুত্বপূর্ণ

প্রায়শই দেখা যায় যে বেশিরভাগ লোকই বিয়ে নিয়ে চিন্তিত। বিশেষ করে বাল্যবিবাহের ক্ষেত্রে, এমন অনেক বিভ্রান্তি থাকে যা সম্পর্কে কেউই একে অপরকে জিজ্ঞাসা করে না। তাদের মনের একমাত্র ধারণা হল যে মেয়েটিকে বিয়ে করবে সে কেমন হবে? সারাজীবন সঠিকভাবে সংসার করবে নাকি তার জীবনে সমস্যার সৃষ্টি হবে? এই ধরনের প্রশ্নগুলি ছেলেদের মনে ঘোরাঘুরি করে, সেই ভাবনাগুলি তাদের উদ্বেগ আরো বাড়িয়ে দেয়, এমনকি শাস্ত্রগুলিতেও, এটি উল্লেখ করা হয়েছে যে বিবাহ শুধুমাত্র সঠিক ব্যক্তির সঙ্গেই দেওয়া উচিত। অন্যথায় তাদের সারাজীবন অনেক সমস্যার মুখোমুখি হতে পারে। এরকম পরিস্থিতিতে, জনগণের উদ্বেগ আরও বেশি বৃদ্ধি পায় যে যার সাথে বিয়ে হবে সে ভালো বা আপনার জন্য সঠিক কিনা।

শাস্ত্রের মতে, এ ধরনের বিষয়ে অনেক কিছু বলা হয়েছে যে, উপযুক্ত কোন মেয়ে পেলে বিলম্ব না করে বিয়ে দিয়ে দেওয়া উচিত। আজ এই প্রবন্ধের মাধ্যমে আপনাদের জানাবো, ধর্মগ্রন্থ অনুযায়ী একটি মেয়ের মধ্যে কোন কোন বিশেষ গুন থাকা উচিত এই সম্পর্কে কিছু তথ্য। আসুন তাহলে জেবে নেওয়া যাক, বিবাহ যোগ্য মেয়ের মধ্যে কী কী বিশেষ গুন থাকা উচিত।

যে মেয়েরা উচু এবং নীচু উভয় ব্যক্তির প্রতি ন্যায্য শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে। এই ধরণের মেয়েদেরকে খুব প্রতিভাবান হিসাবে গণ্য করা হয়।

■যে মেয়েরা সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যকে অনুসরণ করে। সে মেয়েরা বিয়ের জন্য সর্বোত্তম বলে মনে করা হয়। যদি এমন মেয়েরা স্ত্রী হিসাবে আসে তাহলে তার স্বামীর ভাগ্য অনেক বেড়ে যায় এবং এই মেয়েরা গৃহে পূজা ও দেবদেবীর উপাসনার মাধ্যমে সুখ ও সমৃদ্ধিতে ভরিয়ে দেন।

■যে মেয়ের ঘর, পরিবার এবং সমাজের সম্পর্কে জানে সেইসব মেয়েদের খুব ভাল বলে মনে করা হয়। এই ধরনের মেয়েরা সচেতন হয় এবং পরিবারের মান বৃদ্ধি করে।

যে মেয়ের মধ্যে সঞ্চয় করার গুণাবলি থাকে তারা পরিবারের জন্য খুব শুভকামনা বলে মনে করা হয়। পরিবারের আর্থিক অবস্থা শক্তিশালী করার ক্ষেত্রে এই ধরণের মেয়েরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এই মেয়েরা লক্ষ্মীর রূপ হিসাবে স্বীকৃতি পান।

■যে মেয়ের গলার স্বর মিষ্টি হয় এবং যার সাথে কথা বলার পর সুখ অনুভব করা যায়। সেই মেয়েরা বিয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ।

■যে মেয়েরা ভাল উপদেষ্টা এবং খারাপ সময়ে ধৈর্য বজায় রাখতে পারে এবং সঠিক উপদেশ দিতে পারে। সেই মেয়েদের বিবাহ করলে সেই ব্যক্তির ভাগ্য খুলে যাবে।

যে মেয়েটি তার ভাইবোনদের সাথে এবং সমস্ত আত্মীয়দের সাথে ভাল আচরণ করেন এবং সবার সঠিকভাবে যত্ন নেয়। সেই মেয়েরা বিবাহের জন্য যোগ্য বলে বিবেচিত করা হয়।

■যে মেয়েরা নিজের দায়িত্ব পালন করে এবং পরিবারের সম্মান বজায় রাখে, সেইসব মেয়েরা বিবাহের জন্য উপযুক্ত।

■যে মেয়েরা খারাপ পরিস্থিতিতে আপনার পরিবারের সাথে থাকবে এবং বিশ্বাসের সাথে সব সম্পর্ককে রক্ষা করবে। তারা বিয়ের জন্য সেরা বলে বিবেচিত হয়।

আপনাকে ধর্মগ্রন্থ অনুযায়ী মেয়েদের যেসমস্ত গুণাবলী জানালাম। যদি আপনারা এই গুণাবলী সমৃদ্ধ মেয়ে খুজে পান তাহলে সেই মেয়েকে অবশ্যই বিয়ে করুন আপনার ভাগ্য খুলে যাবে এবং আপনার পরিবার সবসময় সুখী হবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button