আপনার স্ত্রীর মধ্যে যদি এই জিনিস গুলো দেখেন, তাহলে আপনার বরবাদ নিশ্চিত…

হিন্দু ধর্মশাস্ত্রে গৃহের লক্ষ্মীদের অবস্থান নারীকে দেওয়া হয়েছে। হিন্দু সমাজে তাদের মা লক্ষ্মী মানা হয় বহু প্রাচীনকাল থেকেই। তাই, ধর্মগ্রন্থ অনুসারে, নারীর কাজের প্রভাব সরাসরি তার পরিবার ও স্বামীর উপর পড়ে। তারা কোনোকাজ ভুল করলে তা যদি বাস্তুতে আঘাত করে, তবে সংসারের অমঙ্গল হয়। মা লক্ষ্মীও এক্ষেত্রে ক্রু্দ্ধ হন। তাই এক্ষেত্রে সংসারের অমঙ্গল ঠেকাতে এবং স্বামী ও পরিবারের সুখ-শান্তি বজায় রাখার দরুণ কয়েকটি নিয়ম মেনে চলআ উচিত অবশ্যই তাদের। নইলে পরিবারের বাস্তু নষ্ট হবে এবং আসতে আসতে পরতে থাকবে দারিদ্রতার ছায়াও।

এই প্রতিবেদনে আলোচনা করা হলো বাড়ির স্ত্রীদের এমনই কিছু লক্ষণের ব্যাপারে যেগুলো যদি তাদের মধ্যে দেখা যায় তবে ভাববেন সে সংসারে অমঙ্গল নিশ্চিত।

১. আপনার স্ত্রী কি দীর্ঘ সময় ঘুমান? এক্ষেত্রে কিন্তু ঘোর অমঙ্গল হয় সংসারে। বিশেষ করে সন্ধ্যেবেলা মেয়েদের ঘুমানো একদমই উচিত নয়।
এতে লক্ষ্মী দেবী প্রচন্ড পরিমাণে ক্রুদ্ধ হন।

২. বাড়ির বউরা যদি ঘর পরিস্কার পরিচ্ছন্ন না রাখে তবে সেক্ষেত্রেও সমস্যা। কারণ এক্ষেত্রে প্রভাব পরে সরাসরি স্বামীর ব্যবসার উপর। তাই একদম ঘর অপরিস্কার রাখবেন না। সবসময় টিপটপ এবং পরিস্কার রাখুন।

৪.আপনার স্ত্রী যদি লোকের সাথে খারাপ ব্যবহার করে । কথায় কথায় তিক্ততা অথবা গালাগালির ব্যবহার করে তবে অসুবিধা হতে পারে। কারণ লক্ষ্মী দেবী শান্ত এব সুশীলা তাই তিনি এরকম মহিলাদের কখনই পছন্দ করেন না যারা লোকের সাথে বাজে ব্যবহার করেন। তাই যদি পরিবারের শান্তি চান তবে মেয়েদের অবশ্যই ভালো ব্যবহার করা উচিত অন্যের সাথে।

৫. বাড়ির বউরা যদি মাদক আসক্ত হন, তবে ঘোর অমঙ্গল। আধুনিকতার ছোঁয়াও যদিও এখন অনেক মহিলার মধ্যেই এই গুণ পরিলক্ষিত, তবুও এর ফলাফল কিন্তু মারাত্মক। পরিবারের শান্তি রক্ষার জন্য স্বামীকেও নেশা করতে দেবেন না এব নিজেও করবেন না সেটাই মঙ্গলজনক। অবশ্যই মেনে চলবেন কিন্তু।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button