সারাদিন বার বার ঘর গোছানোর পরেও ঘর অগোছালো লাগছে? রইলো এই ৫ টি টিপস

“ফাস্ট ইম্প্রেশন ইজ দা বেস্ট ইম্প্রেশন” এই প্রবাদ বাক্যটি হয়তো সকলেই জানেন। আমাদের কারোর প্রতি যদি তার বাড়ির সম্পর্কে খারাপ ধারণা চলে আসে তাহলে তা পাল্টানো খুবই কঠিন হয়ে যায়। বাড়ির ভেতরে যদি অতিথি এসে আপনার ঘর অগোছালো দেখে, তাহলে ব্যাপারটি খুবই বিব্রতকর হতে পারে। অনেক সময় আপনার বাড়ি অতটা অপরিষ্কার থাকে না যতটা অপরিষ্কার দেখায় মাত্র কয়েকটি ভুলের কারণে।

ঘর নোংরা হওয়া এক জিনিস, আর ঘরকে নোংরা করা আরেক জিনিস। অনেক সময় আমাদের ঘর নোংরা না হলেও কিছু কিছু কারণে অপরিষ্কার দেখায় এবং আমাদের নিজস্ব কিছু ভুলের কারণে তা অগোছালো দেখায়। তাই আজ আমরা আপনাদের সে সমস্ত টিপস দিতে চলেছি যেগুলোর সাহায্যে আপনি আপনার ঘরকে আরো পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন দেখাতে পারবেন মানুষদের।

যদিও আপনি আপনার জিনিসপত্র খুব ভালোভাবে রাখেন, কিন্তু আপনি যদি টেবিল, ড্রেসিং টেবিল, রান্নাঘরের কাউন্টার, পাশের স্ট্যান্ড ইত্যাদিতে প্রচুর পরিমাণে স্টাফ রাখেন তবে এটি সবসময় নোংরা এবং অগোছালো দেখাবে। প্রতিদিন পরিষ্কার না করলে সেই জায়গাটি দেখতে খারাপ লাগে।

আপনি আলমারির ভিতরে আপনার ছোট বাক্স, ক্রিম-লোশন, ওষুধ, ছোট জিনিস রাখুন এবং আপনি যদি চান আপনার জন্য বন্ধ ক্যাবিনেট ব্যবহার করতে পারেন বা আপনি ছোট প্লাস্টিকের একটি ড্রয়ারের সেট নিতে পারেন, যাতে আপনার সামনের জিনিসপত্র দৃশ্যমান না হয়।

আপনি যদি ঘরে বেশি পরিমাণে বালিশ, চাদর ইত্যাদি রাখেন তবে আপনার ঘরটি অত্যন্ত অপরিষ্কার লাগে। অপরিষ্কার এবং অপরিচ্ছন্ন থাকার জন্য আপনাদের বাড়িতে ধুলোবালি, মাটি, নোংরা থাকতে হবে তা নয় বরং আপনি যদি আপনার খাটের উপরে অনেক জিনিসপত্র রাখেন তবে সেই জায়গাটি বেশি অগোছালো লাগে।

অবশ্যই কার্পেট এবং পর্দাগুলি প্রায়শই ধোয়া যায় না, তবে এর অর্থ এই নয় যে সেগুলোকে আপনি দীর্ঘ সময়ের জন্য এভাবে রেখে দেবেন। আপনারা যদি এগুলিকে শুকাতে বা ধুয়ে ফেলতে সক্ষম না হন তাহলে আপনি এগুলিকে ভ্যাকিউম ক্লিনার দিয়ে পরিষ্কার করতে পারেন। এই বিষয়গুলো খেয়াল রাখলে আপনার ঘরকে আর অগোছালো দেখাবে না এবং এতে সমস্যাও কম হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button