শ্যাম্পুর সাথে চিনি মেশানোর পর যা হয়, জানলে অবাক হবেন

চিনি, এমন একটি জিনিস যাকে দৈনন্দিন জীবনের প্রতি মুহূর্তে আমাদের দরকার হয়। মিষ্টি বানানোর জন্য তিনি হলো সবথেকে মুখ্য উপাদান। তবে চিনি আমরা অনেকে খেতে ভালবাসলেও চিনি আমাদের শরীরের পক্ষে মারাত্মক ক্ষতিকারক। চিকিৎসকরা প্রতি মুহূর্তে আমাদের অতিরিক্ত চিনি খেতে মানা করেন। চিনির বদলে খাওয়া যেতে পারে সুগার ফ্রি। অতিরিক্ত চিনি অথবা মিষ্টি জাতীয় জিনিস খেলে হতে পারি ডায়াবেটিস অথবা সুগারের মত রোগ।

কিন্তু আপনি হয়তো জানেন না শরীরের পক্ষে ক্ষতিকারক হলেও চিনি কিন্তু সৌন্দর্য বিশেষত চুলের সৌন্দর্য বাড়ানোর জন্য অনেক সাহায্য করে। বৃটেনের বিখ্যাত চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ ডাক্তার ফ্রান্সেস্কা বলেন যে, প্রত্যেকদিন আপনি যখন চুল পরিষ্কার করার সময় শ্যাম্পু ব্যবহার করেন, তখন সেই শ্যাম্পুর সঙ্গে যদি চিনি মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন তাহলে আপনার চুল হয়ে যাবে খুব মজবুত এবং ঘন। আপনার চুল আগের থেকে হয়ে যাবে অনেক বেশি শাইনি এবং দেখতে খুবই সুন্দর লাগবে। সাধারণ শ্যাম্পু ব্যবহার করার পর অনেক সময় আমাদের কন্ডিশনার ব্যবহার করতে হয়। কিন্তু বিশেষজ্ঞদের মতে শ্যাম্পুর সঙ্গে চিনি মিশিয়ে আপনি চুলে লাগাতে পারেন, তাহলে আপনার চুল অনেক সুন্দর পরিষ্কার এবং আদ্রতা সম্পন্ন হয়ে যাবে।

চুলের গ্রোথ কিভাবে বৃদ্ধি পাবে, তা নিয়ে বিশেষজ্ঞরা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেছেন। পরীক্ষা করতে গিয়ে জানা গেছে, যদি নিয়মিত শ্যাম্পুর সঙ্গে চায়ের চামচের মতো এক চামচ চিনি মিশিয়ে মাথায় লাগানো যায় এবং ধীরে ধীরে মাসাজ করা যায়, তাহলে মাথা থেকে খুশকি দূর হয়ে যেতে পারে চুলের গ্রোথ কিভাবে বৃদ্ধি হবে তা নিয়ে অনেকে পরীক্ষা নিরিক্ষা করিয়ে জানতে পেরেছেন, চিনি এমন একটি উপাদান যা নেগেটিভ এবং পজিটিভ দিক দুটোই আছে।

শুধুমাত্র মিষ্টি বানানো অথবা চুলের বৃদ্ধির জন্য এই উপাদানটি প্রয়োজন হয় না এমনকি এই উপাদান ব্যবহৃত হয় চুলের সৌন্দর্য বাড়ানোর জন্য। শুধু চুলের সৌন্দর্য বাড়ানোর জন্য বললে ভুল হবে, চিনি আপনার মুখের সমস্ত কালো দাগ দূর করে দিতে পারে। আপনি যদি প্রত্যেকদিন চিনি দিয়ে মুখে স্ক্রাবিং করতে পারেন তাহলে, আপনার মুখের সমস্ত কালো দাগ দূর হয়ে যাবে। তাহলে আজকে থেকে চিনিকে কাছে টেনে, চিনির ভালো দিকগুলো নিজের কাজে লাগান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button