রিকশাচালকের ছেলে এক অভিনব ময়লা ফেলার মেশিন আবিষ্কার করে রাষ্ট্রপতি সম্মান পেয়েছেন! আজ তার এই অবস্থা

ভারতবর্ষে ট্যালেন্টের শেষ নেই। কিন্তু এই সব টেলেন্ট অনেক সময় আর্থিক পরিস্থিতির কাছে হার মেনে যায়। আজ আমরা আপনাদের এমনই এক ট্যালেন্টেড যুবকের কথা বলব। তিনি হলেন উত্তরপ্রদেশের মথুরার বাসিন্দা সীকান্ত মন্ডল। 2016 সালে “স্বচ্ছতা কার্ট” বানিয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন সকলকে। তার এই আবিষ্কারের জন্য রাষ্ট্রীয় পুরস্কার পেয়েছেন তিনি।

তার এই আবিষ্কারের জন্য জাপান যাওয়ার সুযোগ পেয়েছিলেন তিনি। এছাড়াও “প্যাডম্যান” ফিল্ম এর প্রমোশনের কারণে অক্ষয় কুমার ও সোনাম কাপুরের মতো তারকাদের কাছ থেকে 5 লাখ টাকার পুরস্কার পেয়েছিলেন।

এই সবকিছুর পরেও আজ 2022 সালে এসে তাকে আর্থিক সমস্যার মুখে পড়তে হয়েছে। বর্তমানে তিনি বিএসসি কম্পিউটার সাইন্স নিয়ে পড়াশোনা করছেন। 2016 সালে যখন তিনি নবম শ্রেণীতে পড়তেন তখন এই “স্বচ্ছতা কার্ট” তিনি বানিয়েছিলেন। এই কার্টটি নিজে নিজেই নোংরা পরিস্কার করতে পারত।

2016 সালে তিনি জয় গুরুদেব নামের একটি গুরুকুলে পড়াশোনা করছিলেন। এখানে ফ্রিতে বাচ্চাদের পড়ানো হতো। এমনকি সেখানকার পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার খেয়াল রাখতে হতো বাচ্চাদেরই। সীকান্ত মূলত পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদের বাসিন্দা। কিন্তু কাজের খোঁজে তার বাবা পরিবারসহ মথুরায় চলে যান।

সীকান্ত তার শিক্ষককে একটি ডিজাইন বানিয়ে দেখান এবং নিজের আইডিয়া বলেন। তার সেই শিক্ষক এই আইডিয়াতে প্রভাবিত হন এবং স্কুল স্তরে হওয়া “ইন্সপায়ার আওয়ার্ড” এ অংশগ্রহণ নিতে বলেন। এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য তিনি 5000 টাকা পান এবং সেই টাকা দিয়ে স্বচ্ছতা কার্টের প্রথম মডেল বানান।

তার এই মডেল স্কুল স্তরে সিলেক্ট হয় ও তিনি জেলাস্তরে অংশগ্রহণ করার সুযোগ পান। এমনকি তিনি জেলা স্তরেও সফল হন। তার এই মেশিন একটি কোম্পানি মার্কেটে লঞ্চ করার কথা বলে। কিন্তু কো’রো’নার কারণে তা সম্ভব হয় না। আজও সেই কোম্পানি তার সাথে যোগাযোগ করেনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button