নিজের ধর্ম বদলাবো না, অন্যের ধর্ম বদলাতে দেবো না! এই শর্তে মুসলিম মেয়েকে বিয়ে করলেন এই অবিনাশ! মেয়ে এলো ৮০০০ কিলো মিটার দুর থেকে

“প্রেম” শব্দটা ছোটো হলেও এর গভীরতা অনেক। প্রেমের সম্পর্ককে কোনোদিন ধর্ম, জাতি আটকাতে পারেনি। আপনারা অনেক সিনেমা দেখে থাকতে পারেন এই ধরনের। আজ আমরা বাস্তবের এক ঘটনা আপনাদের সামনে তুলে ধরব। ঘটনাটি হল গোয়ালিয়রের।

মরক্কোর এক মুসলিম যুবতী 8000 কিলোমিটার দূরে স্থিত গোয়ালিয়রের এক হিন্দু যুবকের প্রেমে পড়ে নিজের দেশ ছেড়েছে। যুবকটিও কথা দিয়েছে যুবতীর বাবাকে যে কোনোদিন ধর্ম পরিবর্তনের জন্য বলা হবে না তাকে। নিজেদের ধর্ম ও সংস্কৃতির সম্মান করে একে অপরকে স্বামী-স্ত্রী হিসেবে গ্রহণ করেছে তারা।

জানিয়ে রাখি 24 বছরের ফাদবা লেমালি এক প্রাইভেট কলেজে পড়ে। 3 বছর আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় তার সাথে আলাপ হয় গোয়ালিয়রের 26 বছরের যুবক অবিনাশ দোহরের সাথে। সোশ্যাল মিডিয়ার এই আলাপ ধীরে ধীরে ভালোবাসার রূপ নেয়। কিন্তু বাঁধ সাধে ধর্ম।

তাই তারা নিজেদের পরিবারকে সব জানিয়ে দেয়। প্রথমে মেয়ের পরিবার অসন্তুষ্ট হলেও মেয়ের মুখের দিকে তাকিয়ে রাজি হয়ে যান। গত বুধবার তারা এডিএম কোর্টে রেজিস্ট্রি ম্যারেজ করে নেয়। শীঘ্রই ধুমধাম করে সামাজিক বিয়ে ও রিসেপশন হবে তাদের।

ফাদবার বাবার সাথে কথা বলার জন্য অবিনাশ দুবার মরক্কো গেছে। প্রথম দিকে ফাদবার বাবা রাজি না হলেও যখন অবিনাশ বলে সে নিজে যেমন কোনোদিন ধর্ম পরিবর্তন করবে না, তেমনই ফাদবাকেও কোনোদিন ধর্ম পরিবর্তনের জন্য বলবে না। এই কথা শুনে ও ফাদবার জন্য তার সত্যিকারের ভালোবাসা দেখে রাজি হয়ে যান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button