নপুংসক বিয়ে করলেন এই যুবক, গোটা গ্রাম জানার পর যা ঘটলো! রইলো বিস্তারিত

বন্ধুরা, প্রেম ধর্ম-বর্ণ হোক আর নারী-পুরুষ হোক তাতে কিছু যায় আসে না। কারণ বন্ধুরা, আমরা যেমন শুনে আসছি প্রেম অন্ধ, তেমনই আজকের নিবন্ধে এক যুবক নপুংসকের প্রেমে পড়েছে। সবাই ভালবাসে কিন্তু এমন ভালোবাসা খুব কমই দেখা যায়।

এখানে শিব কুমার ভার্মা, অঞ্জলি সিং নামে এক মেয়েকে বিয়ে করেছেন। কিন্তু এটি কোন সাধারণ বিয়ে নয়, একটি বিশেষ বিয়ে। বর ও কনের বাড়ি প্রতাপগড় এর শাকালপুর গ্রামে। শিব কুমার একজন সাধারণ যুবক, অন্যদিকে কনের নাম অঞ্জলি, যিনি একজন নপুংসক।

আড়াই বছর আগে দুজনেরই প্রথম দেখা হয়েছিল এবং একে অপরকে ভালোবেসে তারা অবশেষে বিয়ে করেছেন। দুজনের সাক্ষাৎ ধীরে ধীরে প্রেমে রূপান্তরিত হলে দুজনেই জানতে পারেন না। পরস্পরকে জানার পর দুজনেই দুজনকে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেন, কিন্তু পরিবারের সদস্যরা তাতে রাজি ছিল না।

এরপর দুজনেই তাদের পরিবারের সদস্যদের বোঝানোর সিদ্ধান্ত নেন। তারপর পরিবারের সম্মতিতেই দু’জনে একে অপরকে বিয়ে করে। অঞ্জলির পুত্রবধূ এবং ভগ্নিপতিকে দান করেছিলেন তার বোন ও শ্যালক।

বিয়েতে গ্রামের অনেক লোকজন উপস্থিত ছিলেন এবং তারাই নবদম্পতিকে আশীর্বাদ দিয়েছেন। তারা একটি অনাথ শিশুকে দত্তক নেবেন এমন ভাবনা চিন্তা করেছেন। অঞ্জলি এবং শিব কুমার প্রমাণ করেছেন যে সত্যিকারের ভালোবাসা কখনো ছেড়ে যায়না।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button