ধর্মেন্দ্রকে নিয়ে এই বড়ো কথা বলে ফেললেন তার মেয়ে ইশা দেওল,

বলিউড সুপারস্টার ধর্মেন্দ্র তার ক্যারিয়ারে অনেক সুপার হিট ছবি উপহার দিয়েছেন তার দর্শকদের। তাঁর স্ত্রী হেমা মালিনীর সাথে তার জুটি হিন্দি সিনেমায় হিট ছিল এবং আগে এই জুটির জন্য পুরো দেশ পাগল ছিল।

ধর্মেন্দ্র চলচ্চিত্র জগতে প্রবেশের আগে বিয়ে করেছিলেন কিন্তু তারপর তিনি হেমা মালিনীর প্রেমে পড়েছিলেন। হেমা মালিনী ও ধর্মেন্দ্রর এশা দেওল ও অহনা দেওল নামে দুই মেয়ে রয়েছে। হেমা ও ধর্মেন্দ্রর বিয়ে হয়েছিল 1980 সালে। এরপর 1981 সালে হেমার বড় মেয়ে এশা দেওলের জন্ম হয় এবং 1985 সালে ছোট মেয়ে অহনা দেওলের জন্ম হয়।

সম্প্রতি, ধর্মেন্দ্র-হেমা মালিনীর মেয়ে এশা দেওল তার বাবার কথা প্রকাশ করেছেন। সম্প্রতি, এশা তার বাবা ধর্মেন্দ্রকে নিয়ে কথা বলেছেন এবং সেখানে তিনি বলেছেন যে, তার বাবা ধর্মেন্দ্র রাতে হেমা মালিনীকে অর্থাৎ তাঁর মাকে একা রেখে বাইরে চলে যেতেন, যার কারণে তার মা খুব দুঃখ পেতেন।

আপনাকে বলে রাখি, অভিনয় জগতে পা রাখার আগে ধর্মেন্দ্র মাত্র 19 বছর বয়সে বিয়ে করেছিলেন এবং প্রকাশ কৌর ও ধর্মেন্দ্রর চার সন্তান রয়েছে- ববি দেওল, সানি দেওল, অজেতা দেওল ও বিজয় দেওল। এরপরে ধর্মেন্দ্র ফিল্ম জগতের দিকে ঝুঁকে পড়েন এবং সেখানে তাঁর দেখা হয় ‘ড্রিম গার্ল’ হেমা মালিনীর সাথে।

একসঙ্গে কাজ করার সময় তাদের প্রেম হয় এবং তিনি হেমা মালিনীকে বিয়ে করেন। দুইবার বিয়ে করার পর ধর্মেন্দ্রকে দুই পরিবারের ভালোভাবে দেখাশোনা করতে হয়েছিল। তবে এই সময় তিনি নানা প্রতিকূলতার সম্মুখীন হন। এই প্রসঙ্গে এশা দেওল বলেন, “যদিও ছোটবেলায় বাবা প্রতিদিন আমাদের কাছে আসতেন,

কিন্তু একটা কথা সবসময় আফসোস হতো, তিনি কখনো রাতে আমাদের সঙ্গে থাকেননি। রাতে বাবা আমাকে, মা আর ছোট বোনকে একা রেখে যেতেন। মাঝে মাঝে বাবা বাড়িতে থাকলেই অবাক হয়ে যেতাম। আমি মাকে জিজ্ঞেস করতাম, “বাবার আজকে শরীর কি ঠিক নেই? এখানে কেন আছেন?””

যখন সে একটু বড় হয়, তখন সে বুঝতে পারে যে, তার বাবা তার জন্য অনেক কিছু করেছেন। তার বাবা উভয় পরিবারের ভালো যত্ন নিতেন। তিনি তার প্রথম স্ত্রী প্রকাশকে দেখতে যেতেন। ধর্মেন্দ্র এখন তার পরিবার এবং সন্তানের থেকে দূরে মুম্বাইয়ের ফার্ম হাউসে থাকেন এবং সেখানেই তিনি কৃষিকাজ করেন।

ধর্মেন্দ্র সোশ্যাল মিডিয়ায় খুব সক্রিয় এবং প্রায়শই তাঁর ছবি শেয়ার করেন। ধর্মেন্দ্র প্রথম কাজ করেছিল 1960 সালে ‘দিলভি তেরা হাম ভি তেরে’ ছবিতে। এরপর ‘শোলে’ এর মত বহু ছবির মাধ্যমে দর্শকদের হৃদয়ে জায়গা করে নেন তিনি। ধর্মেন্দ্রর ফ্যান ফলোইং অসাধারণ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button