কেন এই নায়িকাটা মিঠুনের সাথে কাজ করতে চাইতেন না জানলে অবাক হবেন

প্রতিটা মানুষই তার জীবনে সাফল্য পেতে চায় কিন্তু, সাফল্য পেতে হলে অবশ্যই প্রত্যেকটা মানুষকে ধৈর্যসহকারে প্রত্যেকটা পদক্ষেপে ফেলতে হবে। সাফল্যের পথে হাটতে গেলে অনেক বাধা বিপত্তি আসবে কিন্তু হেরে গিয়ে কখনোই নিজেকে পিছনে ফেলে রাখলে চলবে না। সাফল্য পাওয়া যেমন কঠিন তেমনি অবাস্তব কিছু নয় এবং যদি মনোবল থাকে তবে অবশ্যই যে কেউ সফলতা অর্জন করতে পারবে।

আমাদের সামনে প্রত্যেকটা মানুষই তখনই নজরে আসে যখন তারা নিজেদের সাফল্য অর্জন করে ফেলে, কিন্তু তাদের সাফল্য পেতে গিয়ে যে কতটা পরিশ্রম এবং খরকুটো পুরাতে হয় সে গল্প আমাদের কাছেও অজানা থাকে না। পৃথিবীর সমস্ত সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে অভিনেতা-অভিনেত্রীর সকলেই জীবনে অনেক কঠিন পরিস্থিতি আসে।

এরকমই এক অভিনেতার গল্প যা হয়তো শুনলে পরে আগামী দিনে প্রত্যেকটা মানুষই নিজেদের সাফল্যকে পাওয়ার জন্য আরো বেশি করে চেষ্টা করতে পারবে। এখানে বলা হচ্ছে বলিউড টলিউডের অতি পরিচিত মুখ মিঠুন চক্রবর্তীর কথা। আজ আমরা এক কথায় মিঠুন চক্রবর্তী কে চিনি কিন্তু এই পরিচয়টা পেতে তাকে অনেক প্ররিশ্রম করতে হয়েছিল।

একটি সাক্ষাৎকারে মিঠুন চক্রবর্তীর তার গোটা জীবনের কঠিন পরিস্থিতির সময়টা সম্পর্কে জানিয়ে ছিলেন। তিনি জানান, ইন্ডাস্ট্রিতে প্রথম যখন তিনি কাজে প্রবেশ করেছিলেন সে সময় তার সঙ্গে কোনো অভিনেতা অভিনেত্রী কাজ করতে চাইতেন না। পুরনো কথা তিনি কোন কিছু মনে করতে চান না। সে সময়ে মিঠুন চক্রবর্তীর প্রতিদ্বন্দী যে সমস্ত অভিনেতারা ছিলেন তারা কখনই চাইতেন না অন্যান্য অভিনেত্রীরা যাতে মিঠুন চক্রবর্তীর সঙ্গে অভিনয় করেন। এ ধরনের ব্যবহার কেনই বা সেই অভিনেতারা করতেন সে ব্যাপারে আজও পরিষ্কার নন মিঠুন চক্রবর্তী।

তবে সমস্ত রকম বাধা বিপত্তি কাটিয়ে কাটিয়ে তিনি যে আজ একজন প্রতিষ্ঠিত অভিনেতা সেটা আমরা সকলেই জানি। মহাগুরু মিঠুন চক্রবর্তীর সিনেমা সবসময় পহাউসফুল থেকেছেন বক্স অফিস। মৃগয়া থেকে মিঠুন চক্রবর্তীর অভিনয় জগত শুরু। বলিউড থেকে টলিউড সমস্ত ইন্ডাস্ট্রিতে জায়গা প্রতিষ্ঠিত করতে পেরেছিলেন মিঠুন চক্রবর্তী

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button