কথায় আছে “বিদ্যার চেয়ে বুদ্ধি বড়ো” অষ্টম শ্রেণী পাশ করে আজ অভিনব মেশিন বানিয়ে যেভাবে কোটি টাকা উপার্জন করছেন এই ব্যাক্তি

তামিলনাড়ুর মাদুরাই এর মেলাকক্কল গ্রামের স্কুল ড্রপ আউট এক বাসিন্দা কলার আবর্জনা থেকে আজ কোটি কোটি টাকা উপার্জন করেন। তিনি এই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে না শুধু নিজে উপার্জন করেন বরং বহু মানুষকে কাজও দিয়েছেন। তিনি এই আবর্জনা দিয়ে ঝুড়ি, ব্যাগ ইত্যাদি বানান। তিনি একটি বিশেষ ধরনের মেশিন বানিয়েছেন যা দিয়ে আবর্জনার সাহায্যে দড়ি বানানো যাবে।

মুরগুসেন অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত পড়তে পেরেছিলেন। এরপর তার বাবার কাছে পড়ানোর মতন আর্থিক অবস্থা ছিল না। মুরগুসেন এক গরীব কৃষক পরিবারের সন্তান। পড়াশোনা না শিখেও নিজের বুদ্ধির মাধ্যমে যেভাবে কলার আবর্জনা ব্যবহার করে আজ উপার্জন করছেন তা সত্যিই প্রশংসার।

ছোটো বয়স থেকেই বাধ্য হয়ে তাকে বাবার সাথে চাষের কাজে লেগে পড়তে হয়। 2008 সালে পরিবারের সাথে মিলে কলাগাছের আবর্জনা থেকে তিনি ঝুড়ি ও ব্যাগ বানানো শুরু করেন। 2017 সালে সাইকেলের চাকা, রিম্স ও পুলজ্ ব্যবহার করে একটি মেশিন বানান যা কলাগাছের স্পিনিং এর কাজে লাগবে। মেশিন বানানোর পর BIRAC এর সাথে কন্টাক্ট করেন তিনি। সংস্থার থেকে সাহায্য চান ও মেশিন দেখার জন্য তাদের ডাকেন।

BIRAC এর অধিকারীরা ওই মেশিনের খুব প্রশংসা করেন। এর থেকে প্রেরণা পেয়ে মুরগুসেন দেড় লাখ টাকার বিনিয়োগ করেন। এখন তিনি না শুধু আত্মনির্ভর, পাশাপাশি 300 জনকে কাজও দিয়েছেন। আজ তার কোম্পানি এম এস রোপস্ প্রোডাকশন সেন্টার এর টার্নওভার 1.5 কোটি টাকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button