এক মহিলা কুকুরের নাম “সোনু” রাখায়, পাড়া-প্ৰতিবেশি জানতে পাড়ায় যা হলো

অনেকেই কুকুর রাখতে ভালোবাসেন। এরা মানুষের সব থেকে ভালো বন্ধু। তাই বাড়িতে একটি কুকুর ছানা আনার আগে তাকে একটি ভালো নাম দেওয়া হয়। কুকুরের নামকরণ সম্পর্কে মানুষের বিভিন্ন ধরনের ধারণা রয়েছে। কেউ নিজের কুকুরের নাম খুব মজার রাখে, আবার কেউ খুব সাধারন রাখেন, আবার কেউ খুব অনন্য নাম রাখেন।

সম্প্রতি, কুকুরের নাম রাখার মূল্য দিতে হয়েছে গুজরাটে বসবাসকারী এক মহিলাকে। আসলে গুজরাটের ভাবনগর শহরে 35 বছর বয়সী এক মহিলাকে জীবন্ত পুড়িয়ে মারার একটি হৃদয়বিদারক ঘটনা প্রকাশ্যে এসেছে।

সেই মহিলাটি এখন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এবং মহিলার বয়ানে প্রতিবেশীদের বিরুদ্ধে তাকে জীবন্ত পুড়িয়ে মারার অভিযোগ আসে। এই মহিলা পুলিশকে জানান যে, তিনি তার কুকুরের নাম রেখেছিলেন সোনু এবং কাকতালীয় ভাবে সোনু তার প্রতিবেশী সুরাভাই ভারবাড় এর স্ত্রীর নাম এবং তিনি এই জিনিসটা খুব খারাপ ভাবে নিয়েছেন।

এমন অবস্থায় তিনি তাঁর সহকর্মীদের নিয়ে নীতাবেনের বাড়িতে ঢুকে তাকে জ্বালিয়ে দেন এবং সোমবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটেছে। এই সময় তিনি তার ছোট ছেলের সাথে বাড়িতে ছিলেন। এই সুযোগে সুরাভাই ভারবাড় তার পাঁচজন লোককে নিয়ে নীতাবেনের বাড়িতে প্রবেশ করেন। এরপর তারা ওই নারীকে গালিগালাজ করতে থাকে। কুকুরের নাম সোনু রাখার বিষয়ে মহিলাকে অনেক কিছু বলেছেন।

তিনি প্রতিবেশীদের এসব কথা গ্রাহ্য করেননি, তবে তা উপেক্ষা করে রান্না ঘরে চলে যায় এবং এমন অবস্থায় রান্নাঘরে ঢুকে যান। এরপর তিনজন রান্নাঘরে আসেন এবং নীতাবেনের গায়ে আগুন ধরিয়ে দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button