এই প্রথম ১৯ বছর বয়সী ভারতীয় মেয়ে হয়ে “নাসায়” করলেন এই অবিশ্বাস আবিষ্কার, বিশ্ব দরবারে ভারতের মুখ উজ্জ্বল করলেন

অন্ধপ্রদেশের পশ্চিম গোদাবরীর পালাকোল্লুর 19 বছর বয়সী জাহ্নবী ডাঙ্গেটি শৈশব থেকেই মহাকাশ, গ্রহ এবং নক্ষত্র সম্পর্কে জানতে আগ্রহী। বর্তমানে সে ইঞ্জিনিয়ারিং দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী এবং সম্প্রতি তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আলাবামায় নাসা লঞ্চ অপারেশনের কেনেডি স্পেস সেন্টারের ইন্টারন্যাশনাল এয়ার এন্ড স্পেস প্রোগ্রাম সম্পন্ন করেছেন।

এখনও পর্যন্ত তিনি একমাত্র ভারতীয়, যিনি এটি করেছেন। তিনি বলেন যে, তিনি মঙ্গলে পা রাখার প্রথম ভারতীয়দের মধ্যে একজন হওয়ার স্বপ্ন দেখেন। বলা হয় যে, এই প্রোগ্রামের জন্য সারা বিশ্ব থেকে মাত্র কুড়ি জনকে বেছে নেওয়া হয়েছে, যার মধ্যে জাহ্নবীও ছিলেন এবং তিনি সফলতার সাথে এই প্রোগ্রামটি সম্পন্ন করেছেন।

তার মতে, এর মধ্যে জিরো গ্রাভিটি, মাল্টি অ্যাক্সেস ট্রেনিং এবং জলের নিচে রকেট উৎক্ষেপণের মতন কার্যক্রম অন্তর্ভুক্ত ছিল এবং তিনি প্রথমবারের মতন একটি বিমান চালান। অল্প বয়সে বড় ফ্লাইট প্রশিক্ষণের সময় তিনি ‘টিম কেনেডি’র মিশন পরিচালক হিসেবে নিযুক্ত হন এবং সেখানে তিনি বহু দেশের 16 জনের একটি দলের নেতৃত্ব দেন।

তার দল সফলভাবে আকাশে একটি ক্ষুদ্রাকৃতি রকেট উৎক্ষেপন করে এবং তারপর অবতরণ করে। জাহ্নবী স্পেস ম্যাজিকার ভাইস-প্রেসিডেন্ট, এটি একটি স্টার্টআপ মহাকাশচারী প্রশিক্ষণ কেন্দ্র। তিনি একটি ভারতীয় বেসরকারি মহাকাশ সংস্থা স্টার (স্পেস টেকনোলজি এবং অ্যারোনটিক্যাল রকেট্রি) সহ বেশ কয়েকটি সংস্থার ক্যাম্পাস অ্যাম্বাসেডর ছিলেন।

জাহ্নবী ‘ইন্টারন্যাশনাল অর্গানাইজেশন অফ অ্যাসপায়ারিং অ্যাস্ট্রোনটস’ এর সদস্যা। ইন্ডিয়ান বুক অব রেকর্ডসেও তার নাম লিপিবদ্ধ আছে এবং তিনি একটি ম্যাক্সিকান কোম্পানি থেকে এই প্রোগ্রামের জন্য একটি বৃত্তিও পেয়েছিলেন।

জাহ্নবী বর্তমানে পাঞ্জাবের একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং করছেন, তিনি নাসা এবং অন্যান্য মহাকাশ সংস্থার অনেক প্রোগ্রাম এবং কর্মশালায় অংশগ্রহণও নিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button