অভিনব উপায়ে কৃষকদেরকে চাষের কাজে ট্রেনিং দিয়ে তাদের উপার্জন বাড়িয়ে নিজেও লাখ টাকা উপার্জন করছেন এই তরুণী ,অন্যকে দিচ্ছে ট্রেনিং

আপনার যদি দৃঢ় ইচ্ছা এবং কিছু করার ইচ্ছা থাকে তবে আপনি যে কোনোও কিছু অর্জন করতে পারবেন। 25 বছর বয়সী ববিতা রাওয়াতের ক্ষেত্রেও একই ঘটনা ঘটেছে। যখন তার বয়স 13 বছর, তার বাবা অসুস্থ হয়ে পড়েন। বাড়ির আর্থিক অবস্থাও ভালো ছিল না। ছ’টি ছোট ভাইবোন ছিল এবং এসবের মাঝেও হাল না ছেড়ে নতুন লাইন তৈরি করেছেন ববিতা।

উত্তরাখণ্ডের রুদ্রপ্রয়াগ জেলার উমরেলা গ্রামের বাসিন্দা ববিতা আত্মীয়-স্বজন ও বন্ধুদের কাছ থেকে অর্থ সংগ্রহ করে কৃষিকাজ ও পশুপালন শুরু করেন এবং 17 টি শুষ্ক একরে চাষ করার পর তিনি পুরো এলাকায় আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হন। ববিতা এখন মানুষকে মাশরুম এবং সবজি চাষ করতে বলেন এবং উত্তরাখণ্ড সরকার তাকে সম্মানিতও করেছে এবং তিনি একজন স্নাতকোত্তর এবং বর্তমানে একজন ‘যুব আইকন’ হিসেবে পরিচিত।

ববিতার কাছ থেকে কাজ শেখার পর গ্রামবাসীরা প্রতি মাসে চাষ থেকে 5000-6000 টাকা আয় করেন এবং তারা ঢেঁড়স, ক্যাপসিকাম, টমেটোর মতন জিনিস চাষ করেন। ববিতা একটি ব্যস্ত রুটিনে বাস করেন, কারণ সে তার ভোর চারটার সময় উঠে পশুর সেবা করেন। তারপর সে দুধ বের করে, তারপর দুধ বিক্রির পর জন্য অন্য কাজে যায়। এরপর সে দিনের বেলায় মাঠে সময় কাটায়। এই সময় কেবল রেডিও তার সাথে অবিরত থাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button