সবার কি দুটো করে বিয়ে দেয়া জরুরী? ধারাবাহিকের নাম শ্রীময়ী না রেখে “ডবল-বিয়ে” রাখা উচিত, নেট নাগরিকদের সমালোচনার মুখে শ্রীময়ী ধারাবাহিক

বহুদিন অপেক্ষার পর মানুষের সঙ্গে সাতপাকে বাঁধা পড়লেন শ্রীময়ী। ধারাবাহিকের এই দৃশ্য এবং গল্প অবশ্য দর্শকদের একাংশ খুব ভালোভাবে নিলেও অনেকেই এটা নিয়ে উপহাস করতে ছাড়েননি। যেহেতু এই সিরিয়ালে ইতিমধ্যেই প্রত্যেক চরিত্র দুটি করে বিয়ে করেছেন তাই ইন্দ্রানী হালদার যখন বিয়ের মন্ডপে বসলেন, তখন তাকে নিয়ে উপহাস করা হবে না তা কখনো হয়।

শ্রীময়ী ধারাবাহিক এর গল্পকার লীনা গঙ্গোপাধ্যায় ইতিমধ্যেই ধারাবাহিকের বেশিরভাগ চরিত্রকে দুবার বিয়ের পিঁড়িতে বসিয়ে দিয়েছেন। শ্রীময়ী ধারাবাহিক এর জাম্বো এবং দিথি বাদে সকলেই দুইবার বিয়ে করে ফেলেছেন। ইতিমধ্যেই অঙ্কিতা কে ছেড়ে বিদেশে পাঠিয়ে দিয়েছেন লীনা গঙ্গোপাধ্যায়, অদূর ভবিষ্যতে তার ও দ্বিতীয় বউ নিয়ে ফিরে আসার প্রবল সম্ভাবনা থেকে যাচ্ছে।

এই ধারাবাহিক ক্রমেই যেন দ্বিতীয় বিবাহ নির্ভর একটি ধারাবাহিক হয়ে উঠেছে এবং তার ফলে মিমাররা অসাধারণ একটি কন্টেন পেয়ে গেছেন। যেখানে পরিবারের সকলে দ্বিতীয় বিয়ে নিয়ে বেশ মজায় আছে, সেখানে দিথির মত যে তার মা যদি দুবার বিয়ে করে তাহলে হয়তো পরিবারের সম্মান থাকবে না।

ইতিমধ্যেই শ্রীময়ী এবং রহিত সেন এর বিয়ের পর ফুলশয্যার প্রকাশ্যে আসার পর তা নিয়ে উপহাস করা শুরু হয়ে গেছে নেটিজেনদের মধ্যে। তবে অনেকেই মনে করছেন ধারাবাহিকের এই পর্যায়টি সমাজের কাছে নতুন একটি বার্তা বয়ে নিয়ে আসছে, শুধুমাত্র সমাজের ভয়ে এবং পরিবারের কথা চিন্তা করে অনেকেই নিজের জীবন বলিদান করে দেন। তাই এই সিরিয়ালের মাধ্যমে নতুন করে বেঁচে থাকার একটি পরিকল্পনা খুঁজে পাওয়া গেছে।

তবে কোনভাবেই দুটি বিয়ের কনসেপ্টকে সমর্থন জানানো যাচ্ছে না। অনেকেই এই ধারাবাহিকে নতুন প্রোমো দেখে কমেন্ট করেছেন, এটা একেবারে ফালতু একটি সিরিয়াল। সকলের দুবার করে বিয়ে হয়ে যাচ্ছে। এরকম একটি সিরিয়াল দেখার কোন মানে হয়না। এই সিরিয়ালের নাম শ্রীময়ী না হয়ে ডাবল বিয়ে হওয়া উচিত ছিল। আবার অন্যদিকে অনেক নেটিজেনদের বক্তব্য,

জুন আন্টি যদি অনিন্দ্য দাকে বিয়ে করে তাহলে কোন দোষ নেই, শ্রীময়ী রোহিত আঙ্কলকে বিয়ে করলেই যত সমস্যা। কেন ভাই? কিন্তু শ্রীময়ী তো ডিভোর্সি, তাহলে তো কোনো সমস্যা থাকার কথা নয়। বড় বড় বাচ্চা নিয়ে যদি একজন ছেলে বিয়ে করতে পারে তাহলে মেয়েদের বিয়ে না করার কি আছে। তবে বাংলা সিরিয়াল মানেই এখন কুটকাচালি এবং মারদাঙ্গা। সেখানে ভালবাসার কোন জায়গা নেই। অবিলম্বে লেখিকাদের অন্য কিছু ভাবনাচিন্তা নিয়ে আসা উচিত।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button