ঘুড়ি ওড়াতে গিয়ে দমকা হাওয়ায় উড়ে গেলেন, প্রাণ বাঁচাতে অতপর যা করলেন ভিডিও দেখলে শিউরে উঠবেন

কি ভয়ানক চিত্র আনন্দটাই মাটি করে দিলো। মুহূর্তে আনন্দের মুহূর্ত বদলে গেছিল আতঙ্কে। আসুন জানা যাক বিস্তারিতভাবে ঘটনাটি কী ঘটেছিল, ঘটনাটি ঘটেছে শ্রীলংকার জাফনার, সেখানে এই সময় একটি ঘুড়ি উৎসব উদযাপিত হয় তার নাম পোঙ্গল, সেই প্রতিযোগিতাতেই ৬ জন বন্ধু মিলে একটি ঘুড়ি বানিয়ে তারই মহড়া দিচ্ছিলেন, আর এই মহড়াই তাদের জীবনে এক মর্মান্তিক দুর্ঘটনার রূপ নেয়।

কয়েকজন বন্ধু মিলে একটি ঢাউস ঘুড়ি বানিয়ে ছিলেন এবং তারপর সেটিকে ওড়ানোর বন্দোবস্ত করেছিলেন সকলে মিলে, কিন্তু সেই ঘুড়ির সুতো ছাড়তে শুরু করেন তাঁরা। হওয়ার সাথে সাথে আস্তে আস্তে উড়তে শুরু করে ঘুড়িটি , কিন্তু আচমকাই একটি দমকা হওয়ায় ঘুড়িটি খুব দ্রুত বেগে উপরের দিকে উঠতে শুরু করে এবং বাকিরা সুতো ছেড়ে দিলেও এক ব্যক্তি সেটা ধরে ছিল। ফলে তাকে সমেত উড়িয়ে নিয়ে যায় ঘুড়িটি।

তবে একটা সময়ে সেই সূতো ধরে উড়তে উড়তে ৩০ ফুট উচ্চতায় পৌঁছে গিয়েছিলেন ওই ব্যক্তি। ইতিমধ্যেই সেই ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ার পেজে, ভয়ানক সেই দৃশ্য।

ব্যক্তিটি নিজেকে বাঁচাবার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করতে থাকেন, অপরদিকে নিচ থেকে বন্ধুরা তাঁকে বলতে থাকে তিনি সেই যেন সূতোটই ছেড়ে দেন। তবে শেষ পর্যন্ত প্রাণ বাঁচাতে তিনি সেটাই করেন। একরকম প্রাণের ঝুঁকিই নেন, তবে তিনি কপাল জোরে বেঁচেও যান। বড়সড় দুর্ঘটনার হাত থেকে বেঁচে ফিরেছেন তিনি, বলা যেতে পারে পুনর্জন্ম লাভ করেছেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button